বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার বিমান ভাড়া কত ২০২৪

Photo of author

By admin

বর্তমানে আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা যেতে চাচ্ছেন। তাদের অবশ্যই জানা থাকা প্রয়োজন যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার বিমান ভাড়া কত। তাই আমরা আজকে আপনাদের জন্য নিয়ে আসলাম বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার বিমান ভাড়া সম্পর্কিত তথ্যগুলো নিয়ে। আশা করছি আপনারা যদি আমাদের এই আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়েন। তাহলে সমস্ত তথ্য আপনারা এখান থেকে পেয়ে যাবেন। তাই দেরি না করে এখনই নিচে দেওয়া তথ্য গুলো পড়া শুরু করুন।

এখনকার সময় প্রায় অধিকাংশ লোকজন আছে যারা কিনা জানে না যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা বিমান ভাড়া কত। তাই সে সকল লোকদের জন্য আমরা আপনাদের জানিয়ে দিব যে। কত টাকা বিমান ভাড়া বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার। এবং সেই সাথে আপনাদের আমেরিকা যেতে কি কি ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন। এবং কোন কোন বিমান আমেরিকার উদ্দেশ্যে যাতায়াত করে বাংলাদেশ থেকে। তার সকল তথ্য আমরা বিস্তারিত নিচে পয়েন্ট আকারে জানিয়ে দিব।

বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার বিমান ভাড়া

ইদানিং সময়ে অধিকাংশ লোকজন কাজের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা যাতায়াত করতেছে। তাই অধিকাংশ লোকজন তার কাজে বা ভ্রমণ করার জন্য আমেরিকা যায় বিমানে করে। তাই তাদের অবশ্যই জানার প্রয়োজন যে আমেরিকায় যেতে বিমানে ভাড়া কত টাকা করে। নিচে আমরা আপনাদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে দিব যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার ভাড়া কত টাকা।

বিমানের লিস্টঃ-

  • ওয়াশিংটন এয়ারলাইন্স
  • এঞ্জেলস এয়ারলাইন্স
  • মিয়ামি এয়ারলাইন্স
  • নিউইয়র্ক সিটি এয়ারলাইন্স
  • শিকাগো এয়ারলাইন্স
  • অস্ট্রিন এয়ারলাইন্স
  • ইন্ডিয়া নাপলিস এয়ারলাইন্স

বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার বিমান ভাড়া কত ২০২৪

তাই আপনারা যারা বর্তমান সময়ে অনলাইন অনুসন্ধান করতেছেন। যে বাংলাদেশে কোন কোন বিমান গুলো আমেরিকায় যায়। এবং সেই সাথে বিমান যে সকল আমেরিকার উদ্দেশ্যে যায় তার ভাড়া তালিকা গুলো মানুষ জানতে চায়। তাই আপনারা যাতে করে খুব সহজে বুঝতে পারেন। সেজন্য নিচে আমরা বক্স আকারে একটি লিস্ট দিয়ে দিলাম। যাতে করে সহজেই আপনারা সকল তথ্য সেখান থেকে পেয়ে যেতে পারেন।

ভাড়ার তালিকাঃ-

বিমানের নাম  ভাড়ার তালিকা
এঞ্জেলস এয়ারলাইন্স ১,৯৭,০০০ টাকা।
মিয়ামি এয়ারলাইন্স ১,৯৯,০০০ টাকা।
ফ্রান্সিসকো এয়ারলাইন্স ১,৯৮,০০০ টাকা।
ওয়াশিংটন এয়ারলাইন্স ১,৯৫,০০০ টাকা থেকে ২,০০,০০০ টাকা

বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা যেতে কত টাকা লাগে

বর্তমানে এখন বাংলাদেশের অধিকাংশ ছাত্র কিংবা ছাত্রী যারা কিনা আমেরিকায় যায় তাদের পড়ার উদ্দেশ্যে। তাই তাদের সব থেকে যে জিনিসটি বেশি দরকার সেটি হল টাকার বিষয়টি। কেননা তারা যে কয় টাকা কমে পাবে তাদের জন্য সেটি উপকার হবে পরবর্তীতে।তারা বিমানের ফ্লাইট অনুযায়ী ১ লাক নব্বই হাজার থেকে ২ লাখের মধ্যে আমেরিকায় যেতে পারবে।

বাংলাদেশ টু আমেরিকা কত কিলোমিটার

বাংলাদেশে অনেক মালয়েশিয়া আছে যারা কিনা জানে না যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার দূরত্ব কত কিলোমিটার। তাদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে দিতে চাই যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার দূরত্ব হলো ১৩,২১৯ কিলোমিটার। যা কিনা প্রায় অনেক দূরে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার দূরত্ব। তো আপনার আইডি করে বুঝতে পেরেছেন যে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার দূরত্ব কত কিলোমিটার। তো বিমানে করে গেলে আপনারা খুব সহজেই যেতে পারবেন।

  • বাংলাদেশ থেকে আমেরিকার দূরত্ব হলো ১৩,২১৯ কিলোমিটার।

বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা যেতে কত সময় লাগে

বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর বিমানে করে আমেরিকায় যেতে আপনাদের সময় লাগবে ২৩ ঘণ্টার মতো। আর আপনারা যদি কোন জায়গা দিয়ে কিংবা এদিক ওদিক ঘোরাফেরা করে আমেরিকা যেতে চান তাহলে আপনার সময় লাগবে ৩০ ঘন্টার মত। আমেরিকার যাওয়ার শখ অথবা সবার মনেই আসে। কেউ যেতে পারে আবার কেউ না। তো আপনাদের মধ্যে যারা আমেরিকায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়েছেন তাদের জন্য আমাদের এই আর্টিকেল গুলো।

ঢাকা টু আমেরিকা বিমান ভাড়া ২০২৪

আপনারা হয়তোবা জানেন যে বাংলাদেশ থেকে আপনারা যে কোথায় যান না কেন আপনাদের কে ঢাকা থেকেই ফ্লাইটে করে আপনার গন্তব্য স্থলের জন্য রওনা হতে হবে। তো আগে আপনার ঢাকায় যে সকল এয়ারলাইন্স এর বিমানগুলো রয়েছে তার সকল তথ্য সম্পর্কে জানতে হবে। তাহলে আপনারা খুব সহজেই আমেরিকা উদ্দেশ্যে রওনা হতে পারবেন। এবং কি এর ভাড়া সম্পর্কে সকল তথ্য জানতে পারবেন। তো আপনি দেখে তাই দিতে চাই ভাড়া লাগবে সর্বোচ্চ দুই লাখ টাকার মত।

আরও পড়ুনঃ- বাংলাদেশ থেকে লন্ডন বিমান ভাড়া।

পরিশেষে

সবশেষ আমরা আপনাদেরকে এ কথা বলতে চাই যে আপনারা যারা আমেরিকার উদ্দেশ্যে রওনা হতে যাচ্ছে খুব সতর্কতার ভাবে যাতায়াত করবেন। কেননা আমরা চাই না যে আপনাদের টাকা অযথাই নষ্ট হয়ে যায়। তাই সকল তথ্য আপনার আগে থেকেই জেনে নিবেন। যাতে করে আপনাদের কোথাও কোন ভুল ত্রুটি না থাকে। তো আপনারা যারা আমাদের এই পোস্টটি দেখেছেন হয়তোবা তারা এতক্ষণে তাদের তথ্যগুলো পেয়ে গেছেন। তো ধন্যবাদ তাদেরকে আমাদের সাথে এতক্ষন থাকার জন্য।