বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

Photo of author

By admin

বর্তমান বিশ্বে হাজারো লোক আছে যারা কিনা এন্ড্রয়েড ফোন ইউজ করে থাকে। তারা জানে যে কিভাবে অ্যাপস এর মাধ্যমে সমস্ত কিছু কাজ করা যায়। তাই এরই মধ্যে অসংখ্য লোক আছে যারা কিনা বাটন ফোন ইউজ করে থাকে এখনো। তাই তাদের সবার মনে প্রশ্ন যে কিভাবে বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্ট খোলা যায়। আপনাদের কি আমরা আজকে জানিয়ে দিব আমাদের এই আর্টিকেলটিতে। কিভাবে বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্ট খোলা যায় তার তথ্যগুলো দিয়ে।

আপনারা যদি বাটন মোবাইল দিয়ে নগদে একাউন্টটি খুলতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে আমাদের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। আপনি যদি আমাদের এই আর্টিকেলটি ফাস্ট টু লাস্ট ভালো ভাবে পড়েন আশা করছি আমাদের দেওয়া নিয়মের মাধ্যমে। আপনিও ঘরে বসে বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্টটি খুলতে পারবেন। তাই আর দেরি না করে নিচে নিয়ম সম্পর্কিত তথ্য গুলো দিয়ে দিলাম।

বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি কি বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্টে খুলতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি আমাদের নিচে দেওয়া তথ্যগুলো ভালো করে খেয়াল করুন। কারণ আমরা আপনাদেরকে জানিয়ে দিব কিভাবে আপনি বাটন মোবাইল দিয়ে নগদ একাউন্টে খুলতে পারবেন। এজন্য আপনাকে মনে রাখতে হবে বাটন মোবাইলে অভিষে একটি সিম থাকা প্রয়োজন। যদি আপনার ফোনে সিমটি থাকে তাহলে আপনিও বাটন মোবাইল দিয়ে নগদ একাউন্টে খুলতে পারবেন।

  • আপনাকে প্রথমে এই কোডটি *১৬৭# ডায়াল করতে হবে।
  • উপরের কোডটি ডায়াল করার পর আপনাকে সেখানে আপনার ভোটার আইডি কার্ড এর নাম্বার এবং একটি ফোন নাম্বার দিতে হবে।
  • তারপর সেখানে যাবতীয় সকল কিছু নাম-টাম দিয়ে সাবমিট করতে হবে।
  • সবকিছু দেওয়ার পর আপনাকে পরে পিন দিতে হবে।
  • পিন দেওয়ার পর আপনাকে ওকে বা সাবমিট করা লাগবে। আর এভাবে আপনার একাউন্টটি খুলে যাবে।

কি কি উপায়ে নগদ একাউন্ট খোলা যায়

তো আপনারা বিভিন্ন মাধ্যম আছে যেগুলোর মাধ্যমে বাটন মোবাইলে নগদ একাউন্টে খুলতে পারবেন। আপনারা যে যে উপায়ে বাটন মোবাইলে খুলবেন তার কিছু তথ্য দিয়ে দিব। যেগুলো তথ্য যদি আপনাদের কাছে থাকে তাহলে আপনিও একাউন্টে খুলতে পারবেন। কারণ একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে বেশি কিছু লাগে না।

  • অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের অ্যাপস এর মাধ্যমে।
  • বাটন মোবাইলে মাধ্যমে।

নগদ একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

এখনকার সময় প্রায় সকল লোকই জানে যে একটি একাউন্ট খুলতে কি কি ধরনের প্রয়োজনে কাগজপত্র লাগে। তো আপনারা জানেন যে নগদ একাউন্টে বা যেকোনো ধরনের একাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে। আপনাকে অবশ্যই ভোটার আইডি কার্ড একটি ফোনের সিম এবং আপনাদের পরিচয় পত্র। সকল বিষয় থাকলে আপনিও যে কোন মাধ্যমেই নগদ একাউন্টটি খুলতে পারবেন।

  • একটি সিম।
  • এনআইডি কার্ডের নাম্বার।
  • আর জার এনআইডি কার্ড তার ছবি।

নগদ একাউন্ট খুললে কত টাকা পাওয়া যায়?

ইদানিং সময় প্রায় সকল লোকই ভালো করে জানে যে সব থেকে জনপ্রিয় টাকার লেনদেনের মাধ্যমটি হলো নগদ। তাই বাংলাদেশের প্রায় অধিকাংশ লোকজনই এই নগদ একাউন্টটিতে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য বেশি আগ্রহী থাকে। কারণ এই সাইটটিতে খুব সহজেই মানুষ বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতা পেয়ে থাকে। যেখানে কিনা প্রতিটি চার্জে বা প্রতি ক্যাশ আউট সেন্ড মানিতে হাজারো রকমের সুবিধা পেয়ে থাকে। তাই আমরা আপনাদেরকে জানিয়ে দিব নগদ একাউন্ট খুললে আপনি কত টাকা পাবেন সে সম্পর্কে।

নগদ একাউন্ট খুললে কত টাকা পাওয়া যায়

  • নগদ একাউন্ট খোলার সাথে সাথে আপনাকে ৫০ টাকা দিয়ে দেওয়া হবে প্রথমেই।
  • এই অফারটি শুধু নতুন অ্যাকাউন্ট এর জন্য। 
  • একাউন্টটি খোলার পর যদি রিচার্জ করেন তাহলে আপনাকে বিশ পার্সেন্ট ক্যাশব্যাক দেওয়া হবে প্রথমে।
  • আর এটা একটি বড় ধামাকা আছে যে আপনি তিন মাস পর্যন্ত ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা বোনাস পেতে পারেন।
  • আর নগদের সেন্ট মানি চার্জ ফ্রি।

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম

আপনাদের যাদের নগদ একাউন্টে খোলা আছে তারা অনেকে জানতে চান যে। নগট একাউন্টে দেখার নিয়ম সম্পর্কে। তাই আপনাদেরকে বলে রাখি যে আপনারা দুইভাবে এই একাউন্টে দেখা করা যায়। প্রথমত আপনি এন্ড্রয়েড ফোনের অ্যাপসের মাধ্যমে দেখতে পারবেন। দ্বিতীয় তো আপনি বাটন ফোনের ডায়ালের মাধ্যমে দেখতে পারবেন। নিচে আপনি বাটন ফোনে কি ডায়াল করে দেখতে পারবেন তা তথ্য দিয়ে দিলাম।

  • বাটন মোবাইলে *167# এটি ডায়াল করতে হবে। 
  • যাদের স্মার্টফোন রয়েছে তারা অ্যাপ এর মাধ্যমে নগদ একাউন্ট দেখতে পারেন।
পরিশেষে

আমরা চেষ্টা করেছি আপনাদেরকে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কিত তথ্যগুলো দিয়ে। আশা করছি আপনারা যদি আমাদের এই টিপস বা তথ্যগুলো ভালো করে খেয়াল করুন। আপনিও চাইলে বাটন মোবাইল দিয়ে ঘরে বসে নগদ একাউন্টে খুলতে পারবেন। তাই আর দেরি না করে এখনি আমাদের তথ্য গুলোর উপর ভিত্তি করে একাউন্ট খুলে ফেলুন।