সহজে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

Photo of author

By admin

আপনি কি রকেট একাউন্টটি খুলতে চাচ্ছেন তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। কারণ আপনারা যাতে সহজে রকেট একাউন্ট খুলতে পারেন তার কিছু নিয়ম আজকে আপনাদেরকে জানিয়ে দিব। আপনারা যদি আমাদের এই আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়েন আশা করছি আপনারা। খুব সহজে রকেট একাউন্টটি খুলতে পারবেন। তাই আপনাদেরকে ভালোভাবে বুঝার জন্য নিচে এ সম্পর্কে সহজ কিছু নিয়ম দিয়ে দিব।

বর্তমানে হাজারো লোক আছে যারা কিনা বিভিন্ন প্লাটফর্মে কাজকর্ম করে থাকে। এজন্য প্রত্যেক মানুষকেই তাদের একটি রকেট একাউন্ট থাকা প্রয়োজন। কারণ এখন অধিকাংশ কোম্পানি আছে যারা কিনা সুবিধার জন্য রকেট একাউন্টের মাধ্যমে টাকা পয়সা লেনদেন করে। তাই আপনাদের মধ্যে অনেকে আছে যারা কিনা জানে না যে কিভাবে রকেট একাউন্টটি খুলতে হয়। তাদের জন্য আজকে আমরা নিচে সুন্দর আকারে পয়েন্ট আকারে বুঝিয়ে দিব। যাতে করে তারা ঘরে বসেই এই রকেট একাউন্টটি খুলতে পারে।

সহজে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

এখনকার যুগটা হয়েছে এখন আধুনিক যুগ। এই আধুনিক যুগে প্রত্যেকটি মানুষই এখন মোবাইল সম্পর্কে সবার ধারণা আছে। তাই আপনারা বিভিন্ন উপায়ে রকেট একাউন্টটি খুলতে পারবেন। অনেকে আছে যে রিচার্জের দোকানে গিয়ে এই একাউন্টগুলো খুলে থাকে। আবার অনেকে আছে ঘরে বসেই তাদের নিজস্ব ফোন দিয়ে অ্যাকাউন্ট গুলো খুলে থাকে। আপনারা যারা সহজে ঘরে বসে রকেট একাউন্টটি খুলতে পারবেন সে সম্পর্কে কিছু তথ্য আজকে জানিয়ে দেবো নিচে।

রকেট কি?

আপনাদের মনে অনেকের প্রশ্ন যে রকেট একাউন্ট বা রকেট কি। এটি হলো একটি টাকা লেনদেনের একটি মাধ্যম। যারা বাংলাদেশের শুরু হয়েছে বা প্রতিষ্ঠা হয়েছে ২০১১ সাল থেকে। সেইখান থেকেই যে কোন কাজের জন্য আমরা টাকার লেনদেনের ক্ষেত্রে এই রকেট ব্যবহার করে থাকি। জাকিনা এখন বিদেশী লোকেরাও ব্যবহার করে থাকে।

রকেট একাউন্ট এর সুবিধাসমুহ

বর্তমানে এখন রকেট একাউন্টটি সবচেয়ে ভালো একটি মাধ্যম। কেননা এই একাউন্টের মাধ্যমে খুব সহজেই এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় টাকা পাঠানো যায়। এর সুবিধা এবং কি সিকিউরিটি অনেক শক্ত। রকেট একাউন্টটি হ্যাক করা অনেক ইম্পসিবল। তাই আপনারা যারা রকেট একাউন্টটি খুলতে চাচ্ছেন তারা নিশ্চিতভাবেই একাউন্টটি করতে পারেন কোন ঝামেলা ছাড়াই।

  • ক্যাশ ইন
  • ক্যাশ আউট
  • এটিএম উইথড্রয়াল
  • মোবাইল টপ-আপ
  • সেন্ড মানি
  • ব্যাংক টু রকেট
  • বিল পেমেন্ট
  • মার্চেন্ট পেমেন্ট

রকেট অ্যাপ ডাউনলোড

বর্তমান যুগটা এখন আধুনিক যুগ। এখনকার সময়ে প্রায় হাজারো রকমের অ্যাপস পৃথিবীতে তৈরি হয়েছে। এখনকার মানুষ টাকা লেনদেনের জন্য প্রায় সবসময়ই অ্যাপগুলো খুজে থাকে। তার মধ্যে সবথেকে ভালো এখন জনপ্রিয় মাধ্যমটি হলো রকেট। যা কিনা আপনি প্লে স্টোরে গিয়ে রকেট অ্যাপ লিখে সার্চ করলেই চলে আসবে। অথবা google এ গিয়েও রকেট অ্যাপ লিখে সার্চ করলে চলে আসবে। তারপর সেখানে ডাউনলোড অপশন এ ক্লিক করলেই অটোমেটিক ডাউনলোড হয়ে যাবে।

  • আপস এর মাধ্যমে।
  • আইওস এর মাধ্যমে। 

রকেট একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

অনেক মানুষই আছে যারা রকেট একাউন্ট খুলতে হয় কিভাবে তা জানে না। আজ আমরা তাদের উপলক্ষে জানিয়ে দেবো রকেট একাউন্ট খুলতে হয় কিভাবে এবং কি এর নিয়ম গুলো কি কি। আপনারা যদি স্মার্টফোন চালায় থাকেন তাহলে খুব সহজেই একটি রকেট একাউন্ট খুলতে পারবেন। সেজন্য আপনার সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো একটি সিম। আর আপনাদের এক কপি ছবি এবং কি এনআইডি কার্ড লাগবে তাহলে আপনারা খুব সহজেই রকেট একাউন্টটি খুলতে পারবেন।

  • একটি সচল মোবাইল নাম্বার
  • নেট জুক্ত করতে হবে। 
  • রকেট অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে। 
  • এনআইডি থাকতে হবে। 

রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

ইদানিং সময়ে মানুষজন সবথেকে বেশি অনুসন্ধান করে। যে কিভাবে রকেটে account খোলা যায়। তাই আপনাদের জন্য আমরা আজকে নিচে কিছু নিয়ম বলে দিব। যেগুলো আপনাদের সহজে এই রকেট একাউন্টে খুলতে পারবেন। তাই অবশ্যই নিচে দেওয়া রুলস গুলো ভালো করে খেয়াল করুন। আশা করছি আপনারা সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

  • প্রথমে আপনাকে *৩২২# ডায়াল করতে হবে।
  • তারপর আপনাকে nid card এর নাম্বার দিতে হবে।
  • এরপর আপনার ফোন নাম্বার দিতে হবে।
  • তারপর আপনাকে নিজের ছবি সাবমিট করতে হবে। 
  • এরপর পিন নাম্বার দিতে হবে। যেটি কিনা সবসময় মনে রাখতে হবে। 
  • তারপর ওকে ক্লিক করতে হবে।
  • এভাবে আপনার অ্যাকাউন্ট টি খুলে যাবে। 

অ্যাপ ব্যবহার করে রকেট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

যারা যারা অ্যাপ ব্যবহার করে তখন একাউন্টটি খুলতে চাচ্ছেন তারা খুব সহজেই একাউন্টে খুলতে পারবেন। সেজন্য আপনাদের প্লে স্টোরে গিয়ে একটি অ্যাপ ডাউনলোড দিতে হবে সেখান থেকে আপনারা যা যা করে নিয়েও করতে হবে তা ধারাবাহিকভাবে করলে আপনারা খুব সহজে অ্যাপের মাধ্যমে খুলতে পারবেন। কেননা রকেট একাউন্ট খোলার সবথেকে ভালো একটি মাধ্যম হলো অ্যাপস। তাই যারা যারা অ্যাপ ব্যবহার করে একাউন্টে খুলতে চান তারা আমাদের পোস্টটি ভাল করে দেখতে থাকুন।

রকেট এজেন্ট একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

তো আপনারা যারা এখন এই রকেট একাউন্টে চালিয়ে থাকেন কাজের উদ্দেশ্যে। এদের মধ্যে অনেক মানুষই আছে যারা এই অ্যাকাউন্ট খুলে টাকা পয়সা লেনদেন করে তাদের ইনকাম সোর্স করতে চায়। এখানে অনেক এজেন্ট লোক আছে যারা জানে না যে কিভাবে একাউন্টগুলো খুলতে হয়। বা রকেট এজেন্ট একাউন্ট খুলতে কি কি ধরনের প্রয়োজনে কাগজপত্র লাগে। তাদের জন্য নিচে জানিয়ে দেবো যে রকেট এজেন্ট একাউন্ট খুলতে কি কি ধরনের কাগজ লাগে।

  • যে অ্যাকাউন্ট খুলবে তার ফটো। 
  • এনআইডি / পাসপোর্ট / ড্রাইভিং লাইসেন্স। 
  • ট্রেড লাইসেন্স লাগবে। 
  • মোবাইল নাম্বার লাগবে। 
  • ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান / দোকান এর নাম। 

রকেট একাউন্ট সেন্ড মানি চার্জ

সব থেকে মজার ব্যাপার হলো আপনারা যারা রকেট একাউন্টে সেন্ড মানি করতে চান। তাদের অনেকের মনে প্রশ্ন যে সেন্ট মানি করতে গেলে রকেটে কোন টাকা চার্জ নেয় নাকি। তো তাদের উদ্দেশ্যে বলে রাখি যে রকেটে সেন্ড মানি করতে কোন মানি চার্জ নেই। আপনারা চাইলে যে কোন রকেট নাম্বার সেন্ড মানি করতে ফ্রিতে টাকা পাঠাতে পারেন।

রকেট একাউন্ট ক্যাশ আউট চার্জ

এখন বর্তমানে হাজারো ধরনের টাকা লেনদেনের অ্যাপস তৈরি হয়েছে। তার মধ্যে রকেট একাউন্ট বা রকেট অ্যাপস অন্যতম। এদের মধ্যে অনেকের মনে প্রশ্ন থাকে যে রকেটে ক্যাশ আউট চার্জ কত টাকা করে। তাদের উদ্দেশ্যে বলে রাখি যে রকেটে ক্যাশ আউট চার্জ ১৮ টাকা করে। এখানে প্রতি হাজারে আপনাকে ১৮ টাকা করে ক্যাশ আউট চার্জ কেটে নিবে।

  • হাজারে ১৮ টাকা। 

রকেট একাউন্ট দেখার নিয়ম

আপনাদের যাদের রকেট অ্যাকাউন্ট আছে এবং কি ব্যবহার করে থাকেন। তারা জানতে চায় যে রকেট একাউন্ট দেখবেন কিভাবে এবং কি এ আপনাদের একাউন্টে কত টাকা আসে তা জানবেন কিভাবে। আপনারা চাইলে অ্যাপস এর মাধ্যমে রকেট একাউন্টটি চেক করতে পারবেন। এবং কি যাদের স্মার্টফোন নেই তারা বাটন মোবাইলেও রকেট একাউন্ট চেক করতে পারবে। সেজন্য তাদের ডায়াল কোড গিয়ে *৩২২#চাপ দিলেই খুব সহজে আপনারা রকেটে একাউন্টে চেক করতে পারবেন।

  • প্রথমে আপনাকে *৩২২# ডায়াল করতে হবে।
  • এরপর Balance অপশনে ক্লিক করতে হবে। 
  • তারপর আপনাকে সেখানে পিন নাম্বার দিতে হবে। 
  • এরপর আপনাকে কত টাকা আছে তা দেখাবে। 
  • এছাড়াও ১৬২১৬ লিখে ডায়াল করলেও টাকা দেখাবে। 

রকেট একাউন্ট এর পিন পরিবর্তন

মানুষজন এখন টাকা লেনদেন করে থাকে কোন অ্যাপস এর মাধ্যমে যেমন রকেট বিকাশ এবং কি নগদ। তাদের মধ্য থেকে যারা রকেট একাউন্টটি করেছে। তাদের হয়তো বা কারো রকেট একাউন্টের পিএনটি ভুলে গেছে এবং কি অথবা কারো হ্যাক হয়ে গেছে। তাই তারা রকেট একাউন্টের পিএন পরিবর্তন করতে চায়। তারা খুব সহজে এই পিন পরিবর্তন করতে পারবে অ্যাপস এর মাধ্যমে। সেজন্য তাদের একটি গোপনীয় পিন নাম্বার দিতে হবে যাতে করে কেউ তাদের এই একাউন্টটি হ্যাক না করতে পারে।

  • প্রথমে আপনাকে *৩২২# ডায়াল করতে হবে।
  • তারপর My Account অপশন এ ক্লিক করতে হবে। 
  • এরপর change password অপশন এ জেতে হবে। 
  • সেখানে আপনাকে পুরান পিন দিতে হবে আগে। তারপর নতুন পিন সেট করতে হবে।
  • সবকিছু সেট করার পর ডায়াল করতে হবে। আর তারপর সব ওকে হয়ে যাবে। 

রকেট একাউন্ট এর পিন ভুলে গেলে করণীয়

আপনারা মনে করছেন যে রকেট একাউন্টের পিন ভুলে গেলে এর করনীয় কি। চিন্তার কোন কারণ নেই আপনারা খুব সহজেই পিন ভুলে গেলে তার সংশোধন করতে পারবেন। তার জন্য আপনাদের ডাচ বাংলা ব্যাংকে গিয়ে এ সম্পর্কে সকল তথ্য তাদেরকে জানাতে হবে। আপনাদের সাথে করে অবশ্যই আপনার ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বারটি মনে রাখতে হবে। কেননা আপনারা যদি আপনার আইডি কার্ডে নাম্বারটি নিয়ে যেতে পারেন তাহলে আপনারা ব্যাংকে গিয়ে আপনার একাউন্টে আবার পুনরায় ফেরত নিতে পারবেন।

রকেট একাউন্ট থেকে মোবাইল রিচার্জ

আপনারা যারা রকেট একাউন্ট থেকে নিজের মোবাইলটিতে রিচার্জ করতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনারা চাইলে দুটি উপায়ে রিচার্জগুলো আপনার ফোনটিতে করতে পারবেন। যদি আপনার ফোনটি এন্ড্রয়েড হয় তাহলে রকেট অ্যাপের মাধ্যমে খুব সহজেই মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। আর যদি বাটন ফোন হয় তাহলে *৩২২# লিখে ডায়াল করে মোবাইল রিচার্জ অপশনে যেতে হবে। তারপর সেখানে গিয়ে কত টাকা প্রয়োজন তা লিখে পিন ডায়াল করে দিলেই রিচার্জ হয়ে যাবে।

রকেট একাউন্ট চেক করার কোড

এখনকার সময় প্রায় অধিকাংশ লোকই জানে যে কিভাবে রকেটে একাউন্ট আছে কিনা তার চেক করার নিয়ম সম্পর্কে। আপনারা যদি একইভাবে অ্যান্ড্রয়েড অথবা বাটন ফোন ইউজ করেন। তাহলে এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপের মাধ্যমে বুঝতে পারবেন যে আপনার একাউন্ট আছে কিনা। আর বাটন ফোনে দেখতে হলে আপনাকে *৩২২# ডায়াল করতে হবে। আর আপনি যে সিমটি দিয়ে ব্যবহার করেন সেটিতে ডায়াল করলে বুঝতে পারবেন যে আপনার ফোনটিতে রকেট একাউন্ট আছে কিনা।

  • ডায়াল কোডঃ- *৩২২# ।
পরিশেষে

এই ছিল আমাদের আজকের রকেট একাউন্টের সকল তথ্য যা কিনা আমরা আপনাদেরকে জানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছি খুব ভালোভাবে। যদি আমাদের এই পোস্ট আপনারা সম্পূর্ণ দেখে থাকেন। এবং কি দেখে যদি আপনাদের তথ্যগুলো নিয়ে কিছুটা উপকার হয়। তাহলে অবশ্যই আপনারা আপনাদের আশেপাশে সকল বন্ধুদের কাছে শেয়ার করবেন। যাতে করে তাদের সমস্যাগুলো শুধরে নিতে পারে। ধন্যবাদ এতক্ষণ আমাদের এই পোস্টটি পড়ার জন্য।